করোনায় কর্মহীন মানুষের পাশে হিমু উদ্দিন

0

করোনা পরিস্থিতিতে খাদ্য সংকটে দেশের বিভিন্ন জেলার মানুষ। উপার্জন ও খাদ্য নিরাপত্তায় প্রভাব ফেলেছে করোনাভাইরাস। দারিদ্র্যরেখার নিম্নসীমার নিচে নেমে গেছেন ৮৯ শতাংশ মানুষ। ১৪ ভাগ মানুষের ঘরে কোনো খাবারই নেই। কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের মাঝে খাদ্য বিতরণ করেছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী ও বিভিন্ন ব্যক্তি ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। এরই ধারাবাহিকতায় মুন্সিগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান থানার ইছাপুর গ্রামের আলহাজ্ব ডাঃ খবির উদ্দিন আহমেদের ছেলে জাপান প্রবাসী সফল ব্যবসায়ী, বিশিষ্ট সমাজসেবক হিমু উদ্দিন ওরফে দাদা ভাইয়ের উদ্যোগে প্রায় ৮০০ পরিবারকে দেয়া হলো খাদ্য-দ্রব্য ও উপহার সামগ্রী।

এছাড়া পার্শবর্তী বিভিন্ন গ্রাম ও ইউনিয়নেও ধারাবাহিকভাবে খাদ্যদ্রব্য ও উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। খাদ্যদ্রব্যে দেয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন পরিবারের ৬ মাসের ভরণ-পোষণের দায়িত্বও নিয়েছেন হিমু উদ্দিন ওরফে দাদা ভাই।

ব্যবসায়ী হিমু উদ্দিন বলেন, দেশের এই দুর্দিনে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের পাশে দাঁড়াতে পেরে খুবই ভাল লাগছে। আল্লাহর রহমতে ইছাপুর ইউনিয়নে প্রথম ধাপে প্রায় ৮০০ পরিবারকে খাদ্য ও উপহার সামগ্রী দেয়া হয়েছে। তাছাড়া আশপাশের আরো বিভিন্ন ইউনিয়নের কয়েকশ মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী দেয়া হয়েছে।

হিমু উদ্দিন আরো জানান, আত্মীয়-স্বজনসহ বিভিন্ন পরিবারের পুরো দায়িত্ব নিয়েছি। কারো তিন মাস কারো ছয়মাসের সংসার খরচ চালানোর দায়িত্ব নিয়েছি। এই ক্রান্তিলগ্নে কোনো পরিবারের কারো যাতে কোনো প্রকার সমস্যায় পরতে না হয় সেই ব্যাপারেও আমি সবসময় নজর রাখছি। ইনশাহ্ আল্লাহ্ এই ক্রান্তিকাল শেষ না হওয়া পযন্ত আমি সবার পাশে থাকবো। সবাই দোয়া করবেন এবং সবাই সবার পাশে এগিয়ে আসবেন সাধ্যমত।